সিলেট ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

ছাতকে ইভা খুনে জড়িত তার বড়ো ভাই, কারাগারে প্রেরণ

Stuff
প্রকাশিত অক্টোবর ৭, ২০২৩, ০২:৩৭ অপরাহ্ণ
ছাতকে ইভা খুনে জড়িত তার বড়ো ভাই, কারাগারে প্রেরণ

আওয়াজ ডেস্ক:: সুনামগঞ্জের ছাতকে খুন হওয়া তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ইভা বেগমের (৯) বিচ্ছিন্ন মাথা অবশেষে উদ্ধার করেছে পুলিশ। খুনের ঘটনার ৪৮ ঘণ্টা পর শুক্রবার রাতে উপজেলার দোলারবাজার ইউনিয়নের দক্ষিণ কুরশি গ্রামের লিটন মিয়ার ধানক্ষেত থেকে ইভার মাথাটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহতের বড় ভাই রবিউল হাসানের তথ্যের ভিত্তিতে খণ্ডিত মাথাটি উদ্ধার করা হয়। রবিউলকে ইভা হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে করাগারে পাঠানো হয়েছে। ইভা উপজেলার দোলারবাজার ইউনিয়নের দক্ষিণ কুরশি গ্রামের মুশাহিদ আলীর মেয়ে ও স্থানীয় কুরশি পূর্বপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিল। ইভা হত্যার ঘটনায় তার বাবা গত বৃহস্পতিবার অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় মামলা করেছিলেন।

গত ৪ অক্টোবর বিকেলে ইভা বাড়ির পাশে একটি দোকানে মোবাইল ফোন রিচার্জ করতে যাওয়ার পর থেকে নিখোঁজ ছিল। সন্ধ্যার পর বাড়ির পাশে একটি ধানক্ষেতে মাথাবিহীন বিবস্ত্র অবস্থায় ইভার লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইভার লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ২০২২ সালের ৪ অক্টোবর উপজেলার দোলারবাজার ইউনয়নের দক্ষিণ কুরশি এলাকার খালেদ নুর নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় ইভার মা ও বড় ভাই রবিউলকে আসামি করা হয়। সেই মামলায় রবিউলকে কারাগারেও যেতে হয়। সম্প্রতি রবিউল কারাগার থেকে জামিনে বেরিয়ে আসেন। ধারণা করা হচ্ছে, ইভা হত্যাকাণ্ডে রবিউল ছাড়াও আরও কয়েকজন জড়িত। প্রতিক্ষকে ফাঁসাতেই রবিউলের সহযোগিতায় তারা ইভাকে খুন করতে পারে।

সুনামগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (ছাতক সার্কেল) রণজয় চন্দ্র মল্লিক জানান, এই খুনে জড়িতদের গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা করছে পুলিশ। আশা করি শিগগির খুনিরা ধরা পড়বে।