সিলেট ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

বিদ্যুৎ সংযোগের নামে টাকা আত্মসাৎ, সাবেক ইউপি সদস্য কারাগারে

Stuff
প্রকাশিত অক্টোবর ৪, ২০২৩, ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ
বিদ্যুৎ সংযোগের নামে টাকা আত্মসাৎ, সাবেক ইউপি সদস্য কারাগারে

আওয়াজ ডেস্ক:: সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য থাকাকালে ইউনিয়নের গালিমপুর গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানে শতাধিক গ্রাম বাসীদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার দায়ে তৎকালীন ইউপি সদস্য ও বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি ১ নং পুর্ব পৈলনপুর ইউনিয়ন কমিটি সভাপতি রনজিৎ বৈদ্যকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার আদালতে আত্মসমর্পন করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, পল্লী বিদ্যুতের লাইন সংযোগের নামে রনজিৎ বৈদ্য গালিমপুর গ্রামের শতাধিক গ্রাহকের কাছ থেকে ৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। অর্থ আত্মসাথের অভিযোগ এনে ২০১৬ সালের ৭ জুন সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি -১এ একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন একই গ্রামের অশোক দাশ। অভিযোকটি তদন্তের জন্য খাশিকাপন পল্লী বিদ্যুতের তৎকালীন ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) কাছে আসলে তিনি অভিযোগের সত্যতা পেয়ে বালাগঞ্জ থানায় রির্পোট প্রদান করলে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন প্রেরণ করে পুলিশ। পরে রনজিৎ বৈদ্যকে অভিযুক্ত করে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বালাগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করেন অশোক দাস। মামলা নং ৬৬/২০১৬।

এর আগে রনজিৎ বৈদ্য কর্তিক বিদ্যুৎ সংযোগের নামে জনপ্রতি ৪২শ ও মিটিার সংযোগের নামে আরো ১৮শ টাকা অর্থ আত্মসাথের ঘটনায় বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড পি ডাব্লিউ-৬ থেকে তদন্তের নির্দেশ দিলে তদন্তকারী কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম অভিযোগের সত্যতা পান। তিনিও বালাগঞ্জ থানায় রির্পোট প্রদান করেন। ২০২১ সালের ডিসেম্বরে বিভিন্ন বিষয় বিশ্লেষন করে আদালত রনজিৎ বৈদ্যকে ওই মামলা থেকে অব্যাহতি দিলে আইনজীবীর মাধ্যমে আপিল করেন অভিযোগকারী অশোক দাশ।

পরবর্তীতে সার্বিক বিষয় আদালতের নজরে আনলে সিলেট অতিরিক্ত দায়রা ১ম আদালত অভিযুক্ত রনজিৎ বৈদ্যকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন। এছাড়া আরো ১ বছরের সশ্রম করাদন্ড এবং ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায়ে ১ মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে ১ মাসের মধ্যে আদালতে আত্মসর্পনের নির্দেশ দেন। গত মঙ্গলবার আদালতে আত্মসমর্পন করলে আদালত রনজিৎকে কারাগারে পাঠানোর দির্দেশ দিয়েছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট সমিরণ চন্দ্র দেব বলেন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালত রনজিৎ বৈদ্যকে খালাস দিলে সেই রায়ের উপর আপিল করা হয়। আদালত বিচার বিশ্লষন করে অভিযুক্ত রনজিৎ বৈদ্যকে সাজা দিয়ে ১ মাসের মধ্যে আত্মসমর্পন করার নির্দেশ দেন। গতকাল রনজিৎ আদালতে আত্মসমর্পন করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।