সিলেট ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

এয়ারপোর্ট গেইটের মুখে দোকান কোঠা ভাড়া নিয়ে মালিক-ভাড়াটিয়ার মধ্যে উত্তেজনা

Stuff
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২৩, ০৪:৩৯ অপরাহ্ণ
এয়ারপোর্ট গেইটের মুখে দোকান কোঠা ভাড়া নিয়ে মালিক-ভাড়াটিয়ার মধ্যে উত্তেজনা

 

স্টাফ রিপোর্টার:: সিলেট এয়ারপোর্ট গেইট সংলগ্ন মার্কেটে একটি দোকান কোঠা ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন দরে মালিক ভাড়াটিয়ার বিরোধ কে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকালে এক উত্তেজনা মূলক পরিবেশ তৈরি হয়। পরে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।
ব্যবসায়ী সেবুল আহমদ জানান, সিলেট এয়ারপোর্ট থানাধীন ছদরুল ইসলামের মালিকানাধীন ইসলাম ম্যানশন মার্কেট এ একটি দোকান কোঠা ২০২২ সনের অক্টোবর মাসে ২ লাখ টাকা জামাত ও ১৪ হাজার টাকা ভাড়া নির্ধারিত করে চুক্তি স্বাক্ষর করি। তৎকালীন সময়ে ডেকোরেশন  আরও ৩ লাখ টাকা ব্যায় করি। এবং হাওলাত আরো ৩০ হাজার টাকা নেন। যা সর্বমোট ৫লাকা ৩০ হাজার টাকা আমি ব্যবসার জন্য ইনভেস্ট করি। পরবর্তীতে আমি দেশের বাইরে ভ্রমণ করে আসলে জানতে পারি মালিক পক্ষ অন্যত্র চুক্তি করে ভাড়া দিয়ে দিছেন।  এতে বিভিন্ন সালিসি প্রক্রিয়ায় কোন সমাধান হয় নাই। এখন আমার টাকা না দিয়ে উল্টা আমাদের উপর মামলা করে বসেন। এরই জের ধরে গত ২৯ আগষ্ট শুক্রবার আমার শুভাকাঙ্ক্ষীরা মানববন্ধনের আয়োজন করেন।  এতে ক্রিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ আমাদের উপর হামলা চালায়।
এদিকে মালিক পক্ষ ছদরুল ইসলাম বলেন প্রায় ১১ মাস আগে ভাড়া নেন। এখনো প্রতিষ্ঠান চালু হয়নি। এমনকি তিনি এখনো আমাকে কোন ভাড়া দেন নাই। তাহার এমন অবস্থান আমাকে উদ্বিগ্ন করে। তাই আমি আমার প্রতিষ্ঠান নিজেই পরিচালনার উদ্যোগ নেই। এতে সেবুল আহমদ এর সাথে একাধিক বৈঠকে সুরাহা না হওয়ায় আইনের আশ্রয় নিয়েছি। শুক্রবার প্রতিপক্ষের মারমুখী আচরণের কারনে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে।  পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ে আসে। এ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে একটি সালিসি বোর্ড গঠন করা হয়েছে।  আশাকরি সুষ্ঠু সমাধান আসবে।
এ বিষয়ে খাদিম নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিলোয়ার হোসেন বলেন, আমার প্রতিনিধির মাধ্যমে একটি বৈঠকের আয়োজন করেছি। বৈঠকে সুরাহার ব্যপারে আশাবাদী।