সিলেট ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

হাজী আব্দুস সামাদ মেমোরিয়ালে অনিয়মতান্ত্রিক ম্যানেজিং কমিটি বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন

admin
প্রকাশিত জুলাই ৮, ২০২৪, ১১:২৬ অপরাহ্ণ
হাজী আব্দুস সামাদ মেমোরিয়ালে অনিয়মতান্ত্রিক ম্যানেজিং কমিটি বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন

সদ্য ঘোষণা কৃত ম্যানেজিং কমিটি বাতিলের দাবীতে
সিলেট সদর উপজেলার মহালদিক গ্রামে সোমবার বিকাল ৩ টায় এক মানববন্ধনে জড়ো হন হাজী আব্দুস সামাদ মেমোরিয়াল একাডেমির বর্তমান ও প্রাক্তন শতাধিক ছাত্র ছাত্রী এবং অবিভাবকরা।

বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে আন্দোলনকারীরা শিক্ষা নিয়ে দুর্নীতি মানিনা মানবনা, তফসিল বিহীন নির্বাচন মানিনা মানবনা মিছিলে মুখরিত করে তুলেন। এসময় উপস্থিত বক্তব্যে বক্তারা বলেন, ভোটার তালিকা প্রনয়ন ও নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ছাড়া ঘরোয়া পরিবেশে স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে পূবের্র কমিটির সদস্যরা স্বয়ংক্রিয়ভাবে বতর্মান কমিটির পুনর্বহাল করে এক তালিকা প্রকাশ করেন। যা অনিয়মতান্ত্রিক, তারা বলেন অনতিবিলম্ব অবৈধ অগণতান্ত্রিক, অনির্বাচিত এই ম্যানেজিং কমিটি বাতিল করে নির্বাচন দিতে হবে। এ নিয়ে আমরা ধারাবাহিক কর্মসূচী অব্যাহত রাখবো। আমাদের প্রাণের প্রতিষ্ঠানকে কলঙ্কিত করতে দিবো না।

এতে বক্তব্য রাখেন অলিউর রহমান, আজির উদ্দিন, ইরন শাহ্, আল-আমিন, জিল্লুর রহমান, ইমাম উদ্দিনসহ আরও অনেকে বক্তব্যে আরও প্রকাশ পায় তিলে তিলে গড়ে তোলা এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতার হৃদয়ের রক্তক্ষরণ।

প্রতিষ্ঠাতা প্রতিবেদকের কাছে মুঠোফোনে আক্ষেপ প্রকাশ করে জানান, যুক্তরাষ্ট্রের বুকে নিজ বাড়ি বিক্রয় করে এই প্রতিষ্ঠানটি সূচনা করেছিলাম এখানে আরও বিল্ডিং করে দিতাম, হাসপাতাল করে দিতাম এটা শুধু আমার দেশ প্রেমের কারণে কিন্তু তা আর হয় না। মুড়ারগাও নিবাসী প্রবাসী ফরিদ উদ্দিন আরো জানান, অনেক আশা নিয়ে আমি স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলাম অত্র এলাকার শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিয়ে আলোকিত সমাজগঠনের জন্য। কিন্তু কিছু অযোগ্য মানুষ আমার প্রতিষ্ঠানটিকে বগলদাবা করে পকেট সংগঠনে রূপান্তর করেছেন। প্রবাসে বসে থেকে আমার কি বা করার আছে। চোখের দু’ফোটা জল ফেলা ছাড়া। প্রিয় সাবেক এবং বর্তমান শিক্ষার্থীবৃন্দ, জীবন নদীর শেষ তটে দাড়িয়ে তোমাদের অনুরোধ করতেছি এই সকল ধান্দাবাজদের হাত থেকে প্রতিষ্ঠানটিকে বাঁচাও। এই প্রতিষ্ঠান তোমাদের।

মানববন্ধনে অন্নান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মো: হাবিবুর রহমান, মো:আলি মিয়া, শাহনুর মিয়া,
ইরন শাহ, জিল্লুর রহমান, আজির উদ্দিন, নিয়ামত হোসেন, আল-আমিন আহমদ, রশিদ আহমদ, এমদাদুর রহমান, রশিদ আহমদ প্রমূখ।