সিলেট ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সুনামগঞ্জে প্রথমবারের মতো তবলার বোললিপি প্রশিক্ষণ কর্মশালা

admin
প্রকাশিত আগস্ট ২৭, ২০২৩, ০৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ
সুনামগঞ্জে প্রথমবারের মতো তবলার বোললিপি প্রশিক্ষণ কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সুনামগঞ্জে দেশের প্রথমবারের মতো তবলার বোললিপি ও প্রাচীন রচনাবলি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৬ আগস্ট) জেলা শিল্পকলা একাডেমি সুনামগঞ্জের হাছনরাজা মিলনায়তনে সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বাণী সংগীত একাডেমি ও জেলা শিল্পকলা একাডেমি সুনামগঞ্জের যৌথ আয়োজনে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রশিক্ষন দেন বিশিষ্ট তবলাশিল্পী ও গুরু পিনুসেন দাশ।

বাণী সংগীত একাডেমির পরিচালক  ও জেলা শিল্পকলা একাডেমি সুনামগঞ্জের তবলা প্রশিক্ষক বাবুল আচার্য্যরে সভাপতিত্বে কর্মশালা উদ্বোধন করেন অ্যাডভোকেট অলক ঘোষ চৌধুরী। এ সময় অতিথি ছিলেন, তবলাশিল্পী অঞ্জন চৌধুরী ও দৈনিক প্রথম আলোর সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি খলিল রহমান প্রমুখ।

এ সময় তবলাশিল্পী ও গুরু পিনুসেন দাশ বলেন, ‘গানের ক্ষেত্রে যেরকম স্বরলিপি বা ঘড়ঃধঃরড়হ থাকে, তবলার ক্ষেত্রে কিন্তু সেরকম হয় না। তবে এটা নিয়ে দারুন কাজ করে গেছেন কিংবদন্তি তবলাসাধক আচার্য শংকর ঘোষ। তারই সুযোগ্য শিষ্য পণ্ডিত বিপ্লব ভট্টাচার্য’র কাছে আমি এই বোললিপি পদ্ধতির শিক্ষা লাভ করি। তবে শংকর ঘোষ মহাশয় আবিস্কৃত পদ্ধতির সঙ্গে বিপ্লবদা কিছুটা সংযুক্তি করেছেন। তাঁর সঙ্গে আমার মতো অধমের অযোগ্যতাকে স্বীকার করেই দুঃসাহস করে আরও একটু যৎসামান্য চিন্তা ভাবনা করেছি আর কি। কিন্তু বলাই বাহুল্য এর মূল আবিষ্কারক মহান তবলাসাধক আচার্য শংকর ঘোষ। এটি তবলার বিভিন্ন অংশের সঙ্গে আঙুলের সমন্বয়ে অভিনব পদ্ধতি। যা থেকে তবলা শিক্ষার্থীরা সহজেই তবলার বোলবানী সহজে তুলতে পারবেন।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমার জানা মতে বাংলাদেশে এ বিষয় নিয়ে প্রথম কোনো প্রশিক্ষণ কর্মশালা আয়োজন করা হলো। এজন্য আমি আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’
শুরুতে পিনুসেন দাশ তাঁর তবলাগুরু ভারতের বেনারস ঘরানার দিকপাল প্রখ্যাত তবলাশিল্পী ও গুরু পণ্ডিত সমর সাহার একটি রচনা (টুকরা) দিয়ে কর্মশালা শুরু করেন। পরে তিনি পণ্ডিত জ্ঞানপ্রকাশ ঘোষ, ওস্তাদ আহমেদ জান থিরকুয়া, ওস্তাদ আমির হোসেন খাঁ, পণ্ডিত শ্যামল বোসসহ উপমহাদেশের প্রখ্যাত তবলাগুনিদের রচনাবলি থেকে প্রশিক্ষণ দেন। দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ৪০জন প্রশিক্ষনার্থী অংশ নেন। প্রশিক্ষণ শেষে তাদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।