সিলেট ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সিলেটে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হেনাস্তার শিকার সাংবাদিক

Stuff
প্রকাশিত জানুয়ারি ৯, ২০২৪, ০৬:৩১ অপরাহ্ণ
সিলেটে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে হেনাস্তার শিকার সাংবাদিক

সড়ক ও ফুটপাত দখল করে বসা মাছের বাজারের সংবাদের জন্য ভিডিও ফুটেজ নিতে গিয়ে হেনাস্তার শিকার হয়েছেন এক সাংবাদিক। মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) সকাল এগারোটার দিকে সিলেট নগরীর মদিনা মার্কেটে দেশ টিভির ভিডিও জার্নালিস্ট শ্যামানন্দ শ্যামলের সাথে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সড়ক ও ফুটপাত দখল করে বসা মাছের বাজারের সংবাদের জন্য ভিডিও ফুটেজ নিতে সাথে এক সহকর্মীকে নিয়ে দেশ টিভির ভিডিও জার্নালিস্ট শ্যামানন্দ শ্যামল মঙ্গলবার সকালে মদিনা মার্কেটে যান। এসময় কোন কারণ ছাড়াই ফুটেজ সংগ্রহ করতে নিষেধ আছে বলে সংবাদ সংগ্রহের কাজে বাঁধা প্রদান করেন মদিনা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবলু আহমদ। শুরু হয় বাকবিতন্ডা। এক পর্যায়ে বাবলু আহমদ তার দলবল নিয়ে চড়াও হোন এ দুজন সাংবাদিকের ওপর। অফিসে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। হুমকি ধামকি সহ নানা ভাবে হেনস্তা করেন এ দুজন সাংবাদিকদের।

ঘটনার খবর পেয়ে সিলেটে কর্মরত সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। পরে পুলিশ সেখানে উপস্থিত হয়ে বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক বাবলু আহমদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে দেশ টিভির ভিডিও জার্নালিস্ট শ্যামানন্দ শ্যামল বলেন, ‘মাছের বাজারের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করার পর আমি ব্যাংকে গিয়েছিলাম গ্যাসের ফি এর কার্ডে রিচার্জ করার জন্য। ব্যাংক থেকে বের হতে না হতেই বাবলু আহমদ তার দলবল নিয়ে আমার ওপর চড়াও হয়। আমাকে হুমকি দিতে থাকে যে কেন আমি মাছ বাজারের ভিডিও করেছি।’

এবিষয়ে সিসিকের ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মখলিছুর রহমান কামরান বলেন, বিষয়টি শুনেছি, সাংবাদিকদের পেশাগত কাজে বাঁধা দেয়া কোন ভাবেই উচিৎ নয়। যদি কেউ এরকম করে থাকেন আশা করি বাজার কমিটি সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে বসে এর একটি সুন্দর সমাধান করবেন।

এবিষয়ে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ ঘটনাটি জেনেছেন জানালেও অফিসিয়াল কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি।