সিলেট ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

বাসে আগুন লগাতে সফল হয়নি পিকেটার; চালায় ভাংচুর, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে যুবদল নেতা নিহত! আটক ৩

Stuff
প্রকাশিত অক্টোবর ৩১, ২০২৩, ০৬:০০ অপরাহ্ণ
বাসে আগুন লগাতে সফল হয়নি পিকেটার; চালায় ভাংচুর, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে যুবদল নেতা নিহত! আটক ৩

আওয়াজ ডেস্ক:: বিএনপি-জামায়াতের ডাকা অবরোধের প্রথম দিনে আজ মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) সিলেটে বন্ধ ছিলো আন্তঃজেলা বাস। ছেড়ে যায়নি দূরপাল্লার বাসও। তবে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, নিত্যপণ্যবাহী ও ব্যক্তিগত গাড়ি রাস্তায় দেখা গেছে সামান্য পরিমাণে। কয়েকটি স্থানে নাশকতা করলেও পুলিশের উপস্থিতিতে পালিয়ে যায় পিকেটাররা। পালিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনায় এক যুবদল নেতা নিহত। আটক ৩ জন।

জানাযায় সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমার তেতলি এলাকায় ড্রাম ও গাছ ফেলে ‘পিকেটিং’ করেছেন অবরোধকারীরা। সকাল সোয়া ৯টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। এর আগে সকাল ৮টার দিকে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার গালিমপুর এলাকায় চান্দাইমুখীর রাস্তার মুখে বাইপাস সড়কে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী একটি বাসের টায়ারে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে পিকেটাররা। এসময় গাড়িটিতে ভাঙচুরও চালায় তারা।

তবে বাসের যাত্রীরা গাড়ির টায়ারে লাগা আগুন নিভিয়ে ফেলেন। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছালে পিকেটাররা পালিয়ে যায়।

দফায় দফায় পিকেটাররা দক্ষিণ সুরমায় খাদ্যপণ্যবাহী একটি কাভার্ড ভ্যান, প্রাইভেট কারসহ আরও কয়েকটি গাড়িতে ভাংচুর চালায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছালে পিকেটাররা পালিয়ে যায়। পুলিশের তাড়া খেয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে পালানর সময় গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধিন অবস্থায় গোলাপগঞ্জ যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য দিলু আহমদ জিলু নিহত হন।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো. আজবাহার আলী শেখ বলেন, ‘সকালে দক্ষিণ সুরমায় একটি বাসে ভাঙচুর ও আগুন দেওয়ার চেষ্টার ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। মানুষজনের নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পুলিশ সক্রিয় আছে।

অপরদিকে উত্তর সুরমা ছিলো শান্ত। নগরির প্রাণকেন্দ্র বন্দর, জিন্দাবাজার, আম্বরখানা, রিকাবি বাজার, সোবহানিঘাট প্রতিদিনের মতো চাঞ্চল্য পরিবেশ না থাকলে উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো।

এদিকে, দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় চাপ বেড়েছে ট্রেনে। সকাল থেকেই সিলেট হতে শিডিউলমতো ছেড়ে গেছে সকল ট্রেন।

সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর রাজন বলেন- যাত্রী নেই তাই সিলেটে কোনো বাস চলছে না। তছাড়া পথে বের হলে গাড়ির ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে, তাই পরিবহণ শ্রমিকরা গাড়ি নিয়ে বের হতে চাচ্ছেন না।

সিলেট রেল স্টেশন মাস্টার মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম বলেন- সিলেটের ট্রেন যোগাযাগ স্বাভাবিক রয়েছে। প্রতিদিনের মতো যথাসময়ে সিলেট ছেড়ে গেছে ট্রেন।

তিনি বলেন- আজ ট্রেনে যাত্রীর চাপ একটু বেশি। হয়তো চাস চলছে না এজন্য এমন হয়েছে।